মঙ্গলবার, 13 নভেম্বর 2018

শিক্ষকদের ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন শিক্ষা কর্মকর্তা

Written by  বৃহস্পতিবার, 11 অক্টোবার 2018 01:10
ফিডব্যাক দিন
(0 votes)

তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ঃ শিক্ষককে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন সাতক্ষীরার তালা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ অহিদুল ইসলাম নিজেই। তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, ২৪ আগস্ট ২০১৬ খ্রিঃ তারিখে সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় যোগদান করে বিভিন্ন অনিয়ম ও  দুর্নীতির সাথে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগ উঠেছে শিক্ষা অফিসার মোঃ অহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে। তালা উপজেলার বহু শিক্ষককে অন্যায়ভাবে মিথ্যা অভিযোগ এনে প্রহসনমূলক তদন্ত করে চাকুরীচ্যুতির জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন। কিন্তু কোন শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ করতে না পারায় শিক্ষকরা তার বিরুদ্ধে নামে-বেনামে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ এনে আবেদন করেন। ইতিমধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যথাক্রমে ৩৮.০১.০০০০.৩০০.২৭.০০৬.১৮ ও  ৩৮.০০.০০০০.০০৪.২৭.০০১.১৬.১৭-৬১ নং স্মারকে আদিষ্ট হয়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, খুলনা, এবং বিভাগীয় উপ-পরিচালক,খুলনা, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, সাতক্ষীরার নির্দেশে একাধিক শিক্ষা কর্মকর্তা তালা উপজেলা শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে তদন্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করেছেন। শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে  প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে দাখিলকৃত অভিযোগ পত্র থেকে জানা যায়, তিনি তড়িঘড়ি করে ব্যাপক অর্থ বাণিজ্যের জন্য ৮৩ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগের জন্য নিয়োগ কমিটির সভা না করে ভুয়া রেজুলেশন করে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন। তিনি লক্ষ লক্ষ টাকা লোপাটের দূরভিসন্ধি নিয়ে নিয়োগ দিতে চেয়েছিলেন। ফলে হাইকোর্টে এক রিটের কারণে নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত হয়ে যায়। সরকার কর্তৃক প্রদত্ত ১৫৫ টি ল্যাপ্টপ বিতরণে স্কুল প্রতি ৫০০ টাকা হিসাবে ১৫৫*৫০০=৭৭৫০০ টাকা ঘুষ বাণিজ্য করেছেন। কিন্তু প্রধান শিক্ষকদের নিকট থেকে কোন অর্থ দেননি মর্মে প্রত্যায়ন পত্রে জোরপূর্বক স্বাক্ষর করিয়ে নেন। তার বিরুদ্ধে শিক্ষকরা নারী কেলেঙ্ককারীর অভিযাগ করেছেন। শিক্ষা অফিসার অহিদুল ইসলাম প্রত্যেক মাসে প্রধান শিক্ষকগণের মাসিক সমন্বয় সভা আয়োজনে প্রত্যেক বিদ্যালয় থেকে ১০০০/-টাকা করে চাঁদা উত্তোলণ করেন, যা ভুরি-ভোজের আয়োজনের নামে আত্মসাৎ করা হয়ে থাকে। ইউনিয়ন প্রতিনিধি তৈরি করে জুন ক্লোজিং ২০১৮ এ কনটিনজেন্সি ও প্রাক-প্রাথমিকের বরাদ্দ থেকে ৪০০/-,স্লিপ ৪০০০০/- থেকে ২০০০/-,সিএফসির ১,০০,০০০/- থেকে ৪০০০/-, ক্ষুদ্র মেরামতের ১০,০০০/-টাকা থেকে ৬০০/- ও  ২০,০০০/- টাকা থেকে ৮০০/- হারে ঘুষ বাণিজ্য করেছেন। এ বিষয়ে কয়েকজন প্রধান শিক্ষকের সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে টাকা দিয়েছেন বলে স্বীকার করেন এবং ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন আমরা আর কত টাকা দিলে তার হাত থেকে মক্তি পাব?। বদলী ঠেকানোর জন্য জোর করে ১০৫০ জন শিক্ষকের  স্বাক্ষর করিয়ে নিজের গুণগান  সম্বলিত আবেদন পত্র সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে পাঠিয়েছেন। শিক্ষকরা চাকুরী হারানোর ভয়ে উক্ত আবেদন পত্রে স্বাক্ষর করতে বাধ্য হন। তার ভিজিটিং কার্ডে বিভাগীয় মামলা পরিচালনায় বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত লিখে শিক্ষকদের মাঝে বিতরণ করে ত্রাস সৃষ্টি করে রেখেছেন। এই পর্যন্ত যাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করেছেন তাদের সবার বিরুদ্ধে ক্লাসের উঠতি বয়সী ছাত্রীদের সাথে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ এনেছেন। এ জন্য তিনি  তালা উপজেলায় শিক্ষকদের কাছে “উঠতি বয়সী” টিইও  নামে খ্যাত, যা প্রায় সময়ই শিক্ষকদের মধ্যে হাস্যরস সৃষ্টি করে। পিটিআই এর জাল সনদ নিয়ে কর্মরত, চা বিক্রেতা বারুইহাটি সপ্রাবির প্রধান শিক্ষক আঃ রাজ্জাকের সাথে ঘনিষ্ট সম্পর্ক শিক্ষকদের মনে হাজারো প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। শিক্ষা অফিসার মোঃ অহিদুল ইসলাম নিজে সরকারী মোটর সাইকেল ব্যবহার না করে তালা-পাটকেলঘাটা রোডে ভাড়া খাটান এবং প্রতি মাসে সরকারি বরাদ্ধ (পিইডিপি ও রাজস্ব) অবৈধভাবে আত্মসাৎ করেন।  তার বিরুদ্ধে আনীত অভিয়োগ সন্দেহাতীতভবে প্রমাণিত হওয়ায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তাকে নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলায় শাস্তিমূলক বদলী করেছেন। সীমাহীন অপকর্মের হোতা  সেই শিক্ষা কর্মকর্তা বদলী ঠেকাতে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে দৌঁড়ঝাপ শুরু করেছেন। তালা উপজেলার শিক্ষকরা আগামীকালই তাকে তালা থেকে অবমুক্ত চায়।

পড়া হয়েছে 18 বার

আপনার মতামত জানান...

আপনার মতামত জানানোর জন্য ধন্যবাদ

প্রধান সম্পাদক : আতিয়ার পারভেজ || সম্পাদক ও প্রকাশক : মনোয়ারা জাহান || ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: শাহীন ইসলাম সাঈদ।
বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ২৫, স্যার ইকবাল রোড, পিকচার প্যালেস মোড়, গোল্ডেন কিং ভবন, খুলনা।
সম্পাদক কর্তৃক দেশ বাংলা প্রিন্টার্স, ৫৮, সিমেট্রি রোড, খুলনা হতে মুদ্রিত ও ১০০, খানজাহান আলী রোড থেকে প্রকাশিত।
যোগাযোগঃ সম্পাদক : ০১৭৫৫-২২৪৪০০, বার্তা কক্ষ : ০১৭৮৭-০৫৫৫৫৫, বিজ্ঞাপন : ০১৭৫৫-১১১৮৮৮
ইমেইল : newsamarekush@gmail.com || ওয়েব: amarekush.com