শনিবার, 16 ফেব্রুয়ারী 2019

নেশার জগতে সাতক্ষীরা শহরের হাজার হাজার শিক্ষার্থী ঘুমের ট্যাবলেট প্রেসক্রিপশন ছাড়াই বিক্রি

Written by  মঙ্গলবার, 05 ফেব্রুয়ারী 2019 01:21
ফিডব্যাক দিন
(0 votes)

আব্দুল আলিম ঃ ঘুম ও ব্যথা নাশক ট্যাবলেটের আবরনে ভয়াবহ নেশার জগতে ঢুকে গেছে সাতক্ষীরার  কলেজ ছাত্র-ছাত্রীরা। নেশার এই জগতে ঢুকে তাদের শারীরিক সক্ষমতা দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে। তারা নিস্তেজ হয়ে পড়ছে। আর অভিভাবকরা চিকিৎসার জন্য ডাক্তারদের শরণাপন্ন হলেও নেশার জগত থেকে তাদের সরাতে ব্যর্থ হচ্ছেন। একই সাথে ডাক্তারের কোনো প্রেসক্রিপশন ছাড়াই এসব ওষুধ বিক্রি করছে ফার্মেসী মালিকরা। ফলে সহজেই নেশার ওষুধ হাতে পাচ্ছে শিক্ষার্থীরা।  সাতক্ষীরার বিভিন্ন এলাকার বেশ কয়েকজন অভিভাবক তাদের সন্তানদের ব্যবহৃত ট্যাবলেটের খালি পাতা নিয়ে রোববার সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারের কাছে প্রতিকার চাইতে আসেন। তাদের কাছে ছিল কয়েক শত ট্যাবলেটের খালি পাতা। এ সময় তারা তাদের সন্তানদের শারীরিক অবস্থার বর্ননা দিতে গিয়ে বলেন, এ ট্যাবলেট খেতে বাধা দেওয়ায় তারা আত্মঘাতি হয়ে উঠতে পারে বলে আশংকা করেন।  সাতক্ষীরার পাঁচটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ঘিরে অনুসন্ধান চালিয়ে নেশার ট্যাবলেট গ্রহনের নানা তথ্য পাওয়া গেছে। এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বর্জ্য স্থানে পড়ে থাকতে দেখা গেছে বিপুল সংখ্যক  ট্যাবলেটের খালি পাতা। সাধারন ছাত্রছাত্রীরা এসব তথ্য জানালেও আসক্ত ছাত্রছাত্রীরা তা অস্বীকার করেছে। এ প্রসঙ্গে তারা বলেছে নেশার জন্য নয়, লেখাপড়ার কারণে তাদের ঘুম আসে না। তাই ঘুমের জন্য এবং শারীরিক ক্লান্তি দুর করার জন্য তারা এমন সব ট্যাবলেট খেয়ে থাকে। তবে অভিভাবকদের দাবি তাদের ছেলেমেয়েরা আসক্ত হয়ে পড়েছে। কিন্তু তা জেনেও তার ওপর কঠোর আচরন করতে পারছেন না তারা। অনুসন্ধানে এই প্রতিনিধির হাতে এসেছে ছাত্র ছাত্রীদের ব্যবহৃত ছয় ধরনের ট্যাবলেট। এর মধ্যে রয়েছে মাইলাম ৭.৫, সিন্টা ৫০, পেন্টাডল ৫০, ডর্মিকাম ৭.৫, ডিসোপান ২, ট্যাপেন্টাডল ৫০। ইংরাজী ভাষায় ওষুধগুলির নাম গওখঅগ ৭.৫, ঝণঘঞঅ ৫০, চঊঘঞঅউঙখ ৫০, উঙজগওঈটগ ৭.৫, উওঝঙচঅঘ ২, ঞঅচঊঘঞঅউঙখ ৫০ । ভুক্তভোগী অভিভাবকরা সংগ্রহে রেখেছেন এসব ট্যাবলেটের খালি পাতা। সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারের দফতরে নিয়ে আসা  হয় এসব পাতা। ভুক্তভোগী অভিভাবকরা জানান, তারা এ বিষয়ে ডাক্তারের সাথে কথা বলে জানতে পেরেছেন দীর্ঘদিন এসব ট্যাবলেট খেলে তাদের সন্তান মৃত্যুর দিকে ঝুঁকে পড়তে পারে। তাদের ছেলেমেয়েরা দৈনিক এক সাথে ৭/৮ টিরও বেশি ট্যাবলেট খেয়ে ফেলে। কয়েক বান্ধবী এক সাথে তা খেয়ে ফেলে। বাধা দেওয়ায় তারা আত্মহননের হুমকি দেয়। বাসা বাড়িতে বসে সবার সামনেই এসব ট্যাবলেট গ্রহন করে তারা। এতে তাদের হত্যাশা দুর হয, ভাল ঘুম হয়, বলে দাবি তাদের। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সাতক্ষীরা শহরে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ, সরকারি মহিলা কলেজ, সিটি কলেজ, দিবা নৈশ কলেজ এবং সরকারি পলিটেকনিক কলেজে অধ্যয়নরত ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ৩০ হাজারের কম নয়। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী মেয়েদের ৫০ শতাংশ এই নেশার জগতে ঢুকে গেছে। ছাত্রদের মধ্যে এই ট্যাবলেট গ্রহনের পরিমান অপেক্ষাকৃত কম লক্ষ্যনীয়। বিশেষ করে যারা প্রত্যন্ত এলাকা থেকে সাতক্ষীরায় এসে ভাড়া বাড়ি করে কিংবা মেসে অবস্থান করে লেখাপড়া করে তাদের মধ্যে এই প্রবণতা বেশি লক্ষ্যনীয় হয়ে উঠেছে। তারা অভিভাবকদের কাছ থেকে নিয়মিতভাবে টাকা নিচ্ছে। সেই টাকায় কিনছে এসব ট্যাবলেট। রাতে ঘুম হয়না এমন যুক্তি দেখিয়ে বাবা মার চোখ ফাঁকি দিয়ে তারা এসব ট্যাবলেট ব্যবহার করে নিজেদের শেষ করে দিচ্ছে। এতে স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ায় অভিভাবকরা তাদের নিয়ে যাচ্ছেন ডাক্তারের কাছে। ডাক্তার সব কিছু জেনে বুঝে ওষুধও দিচ্ছেন। একই সাথে এসব ট্যাবলেট ব্যবহার না করার পরামর্শ দিলেও তারা তা মানছে না। এদিকে, সাতক্ষীরা শহরের সব ফার্মেসীতে চিকিৎসকের কোনো প্রেসক্রিপশন ছাড়াই অবাধে এসব ট্যাবলেট বেচাকেনা হচ্ছে। এতে ট্যাবলেট সহজলভ্য হওয়ায় ছেলেমেয়েরা তা গ্রহন করছে। অভিভাবকরা এভাবে ট্যাবলেট বিক্রির ওপর সরকারের নিষেধাজ্ঞা দাবি করেছেন। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, এসব ট্যাবলেট, ঘুম, ব্যথা নাশক এবং শারীরিক উপশমের জন্য ব্যবহৃত হয়। তবে ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া এক নাগাড়ে দীর্ঘদিন ব্যবহার করলে তা তার জীবনের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। তিনি প্রেস্িক্রপশন ছাড়াই ওষুধ বিক্রি অপরাধ জানিয়ে বলেন, এ ব্যাপারে সরাসরি আমাদের  নজরদারি করা জরুরি হয়ে পড়েছে।

??-??-????

04-02-2019

 

পড়া হয়েছে 1 বার

আপনার মতামত জানান...

আপনার মতামত জানানোর জন্য ধন্যবাদ

সোস্যাল নেটওয়ার্ক

খবরের ভিডিও

আজকের রাশিফল

ভাগ্যলক্ষ্মী আজ আপনার সহায় হবে। কাজকর্মে সুফল পাবেন। পরিবারের লোকদের সাথে কোথাও বেড়াতে যেতে পারেন। সময় ভালো যাবে।

আপনার গ্রহ পরিস্থিতি আজ অনুকূল হয়ে পড়বে। দুর্যোগের মেঘ সরে গিয়ে নতুন সূর্য উদয় হবে। সার্বিক সময় ভালোভাবে যাবে।।

প্রেমিক-প্রেমিকাদের জন্য দিনটি বিশেষ শুভ। প্রেমিক-প্রেমিকদের মধুর মিলন হবে। আপনার দাম্পত্য দিকও ভালো যাবে। সময় ভালো যাবে।

এমন কোনো ঘটনা ঘটতে পারে যার ফলে বসের বকুনি খেতে হচ্ছে। ব্যবসা-বাণিজ্যে লোকসান হতে পারে। সময় আপনার অনুকূলে নেই।

পথ চলতে বা দূরের যাত্রায় সতর্ক থাকুন। কোনো ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। আপনার সব দু’নম্বরী কাজ আপাতত বন্ধ রাখুন। সময় শুভ নয়।

আপনার সামনে সমস্যা আসবে ঠিকই। তবে আপনি বুদ্ধিমত্তার সাথে সব প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবেলা করে নেবেন। সময় ভালো যাবে।

ব্যবসায়ীদের জন্য আজকের দিনটি বিশেষভাবে শুভ। আপনার ব্যবসা-বাণিজ্য ফুলে-ফেঁপে উঠবে। আপনি নানা সূত্র থেকে টাকা পয়সা পাবেন।

কোনো টাকা আটকে গিয়েছিল বা কোনো আটকে থাকা বিল আজ পেতে পারেন। কাজকর্মে সর্বাত্মক সুফল আশা করতে পারেন।

আজ আপনার গ্রহ পরিস্থিতি প্রতিকূল হয়ে পড়বে। শোকগ্রস্ত হওয়ার মতো কোনো ঘটনা ঘটতে পারে। টাকা-পয়সার টানাটানি চলতে থাকবে।

কর্ম ক্ষেত্রে আপনার কারণে বড় কোনো অর্ডার আসতে পারে। ফলে বস আপনার প্রতি সদয় হবে। ভালো কোনো বদলি বা পুরস্কার পেতে পারেন।

শত্রু এবং বিরোধীদের তৎপরতা বেড়ে যেতে পারে। কিন্তু ভয়ের কিছু নেই। তারা আপনার কোনো ক্ষতি করতে পারবে না। সময় মিশ্র সম্ভাবনাময়।

দাম্পত্য সুখ শান্তি প্রতিষ্ঠায় জীবন সাথীর মতামতকে গুরুত্ব দিন। নইলে অশান্তি দেখা দেবে। রাগ ক্ষোভ জেদ পরিহার করার চেষ্টা করুন।

অনলাইন জরিপ

দুদক চেয়ারম্যান বলেছেন, দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জিত অর্থ জঙ্গিবাদের পেছনে ব্যয় হচ্ছে। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?
  • Votes: (0%)
  • Votes: (0%)
  • Votes: (0%)
Total Votes:
First Vote:
Last Vote:

হাট-বাজার

আঠারো মাইল পশুর হাট - ডুমুরিয়া, খুলনা, বাংলাদেশ

বিস্তারিত দেখুন

পুরনো খবর

প্রধান সম্পাদক : আতিয়ার পারভেজ || সম্পাদক ও প্রকাশক : মনোয়ারা জাহান || ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: শাহীন ইসলাম সাঈদ।
বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ২৫, স্যার ইকবাল রোড, পিকচার প্যালেস মোড়, গোল্ডেন কিং ভবন, খুলনা।
সম্পাদক কর্তৃক দেশ বাংলা প্রিন্টার্স, ৫৮, সিমেট্রি রোড, খুলনা হতে মুদ্রিত ও ১০০, খানজাহান আলী রোড থেকে প্রকাশিত।
যোগাযোগঃ সম্পাদক : ০১৭৫৫-২২৪৪০০, বার্তা কক্ষ : ০১৭৮৭-০৫৫৫৫৫, বিজ্ঞাপন : ০১৭৫৫-১১১৮৮৮
ইমেইল : newsamarekush@gmail.com || ওয়েব: amarekush.com